শান্তিরক্ষা মিশনে প্রথম নারী কন্টিনজেন্ট কমান্ডারকর্নেল ডা. নাজমা বেগম

দেশের উন্নয়ন ও অগ্রগতিতে নারীদের ভূমিকা এখন শীর্ষে। দীর্ঘ প্রায় ৩ যুগ ধরে দেশের প্রধানমন্ত্রী নারী। এ তালিকায় আছেন বিরোধী দলের নেতা, মন্ত্রী, স্পিকার, বিচারপতি, সচিব, জেলা প্রশাসক, বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য থেকে শুরু করে আরও অনেক পদ। তবে শুধুই দেশের উন্নয়নে নয়, এবার বিশ্ব শান্তি প্রতিষ্ঠার সংগ্রামেও নেতৃত্ব দেবেন নারী।

জানা গেছে, জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে নারী কন্টিনজেন্ট কমান্ডার হিসেবে দায়িত্ব পালন করতে যাচ্ছেন কর্নেল ডা. নাজমা বেগম।

আফ্রিকার দেশ আইভোরিকোস্টের উদ্দেশে শনিবার রাত সাড়ে ১১টায় হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ত্যাগ করে ডা. নাজমা বাহিনী। প্রথমবারের মতো জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে নারী কন্টিনজেন্ট কমান্ডার হিসেবে দায়িত্ব পালন করতে যাচ্ছেন কর্নেল ডা. নাজমা বেগম।

কর্নেল ডা. নাজমা বেগমের নেতৃত্বে ৬ জন নারী সদস্যসহ রয়েছেন ৫৬ জন সেনা সদস্যের মেডিকেল কন্টিনজেন্ট। জাতিসংঘের বিশেষ একটি বিমানে তারা রাত সাড়ে ১১টায় ঢাকা ত্যাগ করেন।

তবে নারী হিসেবে নয়, সৈনিক হিসেবেই সেবা দিতে মিশনে যাচ্ছেন বলে সাংবাদিকদের জানিয়েছেন জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনের প্রথম নারী সেনা কমান্ডার কর্নেল ডা. নাজমা বেগম।

জাতিসংঘ শান্তি রক্ষা মিশনে বাংলাদেশি সেনা সদস্যদের অর্জিত সাফল্যের কথা উল্লেখ করে সুনাম ধরে রাখতে দেশ ছাড়ার আগে দেশবাসীর দোয়াও চেয়েছেন তিনি।

বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ইতিহাসে প্রথম নারী হিসেবে ২১ ফিল্ড এ্যাম্বুলেন্সেরও নেতৃত্ব দিতে যাচ্ছেন কর্নেল নাজমা। নতুন চ্যালেঞ্জ গ্রহণে দৃঢ় প্রত্যয় ছিল নাজমা ও তার সহকর্মীদের চোখেমুখে।

Comments

comments